গাইবান্ধাসাঘাটা

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেবা পাচ্ছে না মানুষ

গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার ৫০ শয্যার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কাঙ্ক্ষিত স্বাস্থ্যসেবা পাচ্ছেন না মানুষ। অভিযোগ উঠেছে, সেবা নিতে আসা রোগীরা নিয়মিত হয়রানির শিকার হচ্ছেন সরকারি এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। এ ছাড়া যন্ত্রাংশ নষ্ট, জনবল না থাকা এবং ওষুধের সরবরাহসহ নানা অজুহাতে রোগীদের সেবা দেওয়া হচ্ছে না। বাধ্য হয়ে ধারদেনা করে গরিব-অসহায় মানুষ চিকিৎসা করাচ্ছেন শহরের বিভিন্ন চিকিৎসকের কাছে। অনেকেই আবার নিরুপায় হয়ে যাচ্ছেন গ্রামের হাতুড়ে চিকিৎসকের কাছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের প্রায় ৩ লাখ মানুষের চিকিৎসার একমাত্র ভরসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। সে কারণে প্রতিদিন ডেলিভারি, ডায়রিয়া এবং দুর্ঘটনায় হতাহতসহ বিভিন্ন ধরনের রোগীরা আসে অন্তঃ ও বহির বিভাগে চিকিৎসা নিতে। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি না করে বেশির ভাগ রোগীকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অথবা জেলা সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দিচ্ছেন। এ ছাড়া বহির বিভাগে প্রতিদিন সেবা নিতে আসা প্রায় ৫০০-৬০০ রোগীকে দায়সারা চিকিৎসা দিয়ে বিদায় করে দেন ডাক্তাররা। আর্থিকভাবে অসচ্ছল মানুষ দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে চিকিৎসার পরিবর্তে হয়রানির শিকার হচ্ছেন।

চিকিৎসা নিতে আসা রোগী জমেলা বেগম জানান, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে দুর্ব্যবহার করে তাড়িয়ে দেন। একই কথা জানান, বহির বিভাগে চিকিৎসা নিতে আসা আরও অনেকে।

স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আরিফুজ্জামান বলেন, ডাক্তারদের ব্যবহার এমন হওয়ার কথা নয়। রোগীদের সঙ্গে অথবা রোগীর স্বজনদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে থাকলে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান তিনি।

Back to top button