গাইবান্ধাগাইবান্ধা সদর

গাইবান্ধায় প্রথম আলোর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

প্রথম আলোর ২৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন উপলক্ষে রোববার (০৭ নভেম্বর) গাইবান্ধা বন্ধুসভার উদ্যোগে নানা কর্মসূচি পালিত হয়। সকালে বন্ধুসভার সদস্যরা গাইবান্ধা জেলা শহরের পি.কে বিশ্বাস রোডস্থ শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের নামফলকের স্মৃতিস্তম্ভ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে। বিকেলে গাইবান্ধা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে প্রীতিসম্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়।

প্রীতিসম্মিলনীর শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন প্রথম আলোর প্রতিনিধি শাহাবুল শাহীন তোতা। এতে সভাপতিত্ব করেন গাইবান্ধা বন্ধুসভার সহ-সভাপতি ওবায়দুল ইসলাম। বক্তব্য দেন বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর জেলা সভাপতি জহুরুল কাইয়ুম, কবি সরোজ দেব, সমাজকর্মী জাহাঙ্গীর কবীর তনু, গাইবান্ধা সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুদুর রহমান ও পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুর রউফ, সাংবাদিক কে এম রেজাউল হক, আবেদুর রহমান স্বপন, অমিতাভ দাশ হিমুন, ফেরদৌস জুয়েল, তাজুল ইসলাম রেজা, রিকতু প্রসাদ ও আরিফুল ইসলাম বাবু এবং বন্ধুসভার সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান প্রমুখ।

এরপর সমাজে ভালো কাজে অবদান রাখার জন্য গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ছোট সোহাগী গ্রামের মেহেরুন্নেসা বৃদ্ধাশ্রমের সভাপতি আপেল মাহমুদ ও সাঘাটা উপজেলার উল্লাসোনাতলা গ্রামের সমাজকর্মী গোপাল চন্দ্র বর্মণকে সম্মাননা স্মারক দেওয়া হয়। গোপাল চন্দ্র দীর্ঘদিন ধরে শিশু জন্মগ্রহন করলেই সেই শিশুর অক্সিজেনের চাহিদা মেটাতে নবজাতকের বাড়িতে একটি গাছ লাগিয়ে আসছেন। তাদের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন অতিথিরা। এছাড়া তাদেরকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

পরে বন্ধুসভার সদস্যরা অতিথিদের নিয়ে প্রথম আলোর জন্মদিনের কেক কাটেন। শেষে সংগীত পরিবেশন করে স্পন্দন শিল্পীগোষ্ঠীর উত্তম সরকার ও গীতাঞ্জলী সরকার।

প্রীতিসম্মিলনীতে বক্তারা বলেন, নানা বাঁধা পেরিয়ে প্রথম আলো ২৩ বছর পূর্ণ করেছে। অন্যায়ের সাথে আপোষ করেনি। তারা সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করে আসছে। তারা বলেন, পত্রিকার কাজ খবর পরিবেশন করা। কিন্তু প্রথম আলো মানবিক মূল্যবোধকে সামনে রেখে সামাজিক কাজে অবদান রাখছে। যা সমাজের মানুষকে ভালো কাজে উদ্বুদ্ধ করছে। পত্রিকাটির বিভিন্ন পাতায় প্রকাশিত লেখা শুধু তথ্যই সরবরাহ করেনা, পাঠককে নানা প্রয়োজনীয় তথ্য জানাতেও সহায়তা করে। এক্ষেত্রে পড়াশোনা পাতাটি বিশেষ ভূমিকা রাখছে। এ ধারা যেন অব্যাহত থাকে।

Back to top button